জেনে নাও

Fake News বা গুজব কিভাবে চিনবে?

Fake News বা গুজব কিভাবে চিনবে?
60views

বর্তমান ইন্টারনেট ও প্রযুক্তির যুগে সবকিছু এখন হাতের মুঠোই। আজকের ঘটে যাওয়া ঘটনা গুলো জানতে আমাদের কালকে সকালে সংবাদপত্র কখন  আসবে তার জন্য আর অপেক্ষা করতে হয়না। সহজলভ্য ইন্টারনেট ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে এখন সংবাদ পাওয়া সহজ। ঠিক তেমনি তেমনি প্রযুক্তির সহায়তায় ভুয়া সংবাদ ছড়িয়ে দেয়াও অনেক সহজ।

অবশ্যই পড়ুন   ভুল তথ্য/গুজব কিভাবে আটকাবেন?

আমাদের দেশে গুজব/ভুয়া সংবাদ বা Fake News সমস্যাটি প্রকট। আমাদের দেশে কিংবা পাশের দেশ ইন্ডিয়াতে এই সমস্যাটি ব্যপক হওয়ার কারণ হচ্ছে, আমরা অতি অল্পতেই বিশ্বাস করে ফেলি কোনোরকম যাচাইবাচাই না করেই। সহজেই Fake News টি ভাইরাল হয়ে যাচ্ছে যেটাকে মুলত আমরাই ভাইরাল করছি কোনো কিছু না বুঝেই। আর আমাদেরকে পুঁজি করে কিছু অসাধু মানুষ Fake News ভাইরাল করে সেই ওয়েবসাইটে ভিজিটর এনে বিজ্ঞাপনবাবদ অর্থ উপার্জন করে নিচ্ছে।

তাছাড়া সারা বিশ্বেই এই সমস্যা প্রবল। প্রযুক্তির প্রাসার এবং ইন্টারনেট এর সহজলভ্যতাই Fake News ছড়ানোর একমাত্র কারণ। কিন্তু তাই বলে কি প্রযুক্তির ব্যবহার বন্ধই একমাত্র সমাধান Fake News আটকানোর? মোটেই না। একটু সতর্ক হলেই আসল সংবাদ এবং ভুয়া সংবাদ সহজেই আলাদা করে ফেলতে পারি।

আরো পড়তে পারো ই-মেইল ব্যবহার এর ৬টি শিস্টচার

১। ওয়েব সাইটের নাম/ ডোমেইন নেম

ওয়েবসাইট এর ডোমেইনই হচ্ছে একটি ওয়েবসাইটের মুল পরিচয়। যেমন, আমাদের স্বাধীন স্কুল এর ওয়েবসাইট এর নাম হচ্ছে ShadhinSchool.com। তাছাড়া বিশ্বের বড় বড় সংবাদ মাধ্যম গুলোর মধ্যে অন্যতম bbc.com, cnn.com ইত্যাদি। আমরা এই ডোমেইন এর দিকে তাকালেই অনেকটাই বুঝে যাবো সংবাদটি আসল কিনা।

কিন্তু ডোমেইন নেইমটিতে যদি নিচের যেকোনো একটি বা সবকয়টি বৈশিষ্ট্য থাকে, তাহলে সেটির সংবাদ ভুয়া হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

  • ডোমেইন নেইমটি বেশ অদ্ভুত বা বেমানান (যেমন, zakkasnewsbd.com)
  • খুব জনপ্রিয় কিংবা পরিচিত সংবাদ ডোমেইন এর নকল (যেমন, prothom-alu.com)
  • ডোমেইন নেইমটি খুব বড় এবং পরিচিত ডোমেইন এক্সটেনশন (.com, .net, .org ইত্যাদি) ব্যবহার না করা (যেমন, tazakhoboralltimebd24.to)
আরো পড়তে পারো দ্রুত টাইপিং শিখার ৫টি গেম এবং অ্যাপ্লিকেশন

২। অন্যান্য পরিচিত সংবাদ মাধ্যমে সংবাদটি না আসা

কিছু কিছু সংবাদমাধ্যম রয়েছে যারা সর্বজনস্বীকৃত, বহু বছর ধরে টিকে রয়েছে, নিরপেক্ষ এবং পেশাদার। যেমন- প্রথম–আলো, The Daily Star, The New Age ইত্যাদি। আন্তর্জাতিক যেমন– BBC, New York Times, The Guardian ইত্যাদি। এসব ওয়েবসাইট থেকে Fake News কখনই ছড়ায় না এবং ছড়ানোর সভাবনাও নাই।

তুমি যদি অন্য কোনো ওয়েবসাইট থেকে কোনো সংবাদ পেয়ে থাকো সেটির সত্যতা যাচাই করতে পরিচিত ও স্বনামধন্য সংবাদ মাধ্যমে চেক করে দেখো ওখানে এই সংবাদটি এসছে কিনা। যদি না এসে থাকে তাহলে সন্দেহাতীত ভাবেই ঐ সংবাদটি ভুয়া।

আরো পড়তে পারো সঠিক সময়ে সকল কাজ শেষ করার সহজ উপায়

৩। ওয়েবসাইটের অনান্য সংবাদ

এখন ধরো ওয়েবসাইট এর ডোমেইন নেইম অনেকটা বিশ্বাসযোগ্য (হতে পারে নতুন কোনো সংবাদ মাধ্যম)। তুমি যেই নিউজটি পেলে সেটিও অবিশ্বাস করার মত না। তাহলে এখন উপায় কি নিশ্চিত হওয়ার? উপায় হচ্ছে, তুমি ঐ ওয়েবসাইটের অন্যান্য সংবাদগুলোর দিকে থাকাও। ধরো, তোমার কাছে “নোয়াখালীর আকিবের হিমালয় পর্বত জয়” খবরটি বিশ্বাসযোগ্য বলে মনে হচ্ছে। এখন তুমি ওয়েবসাইট এর বাকি সংবাদগুলো দিকে তাকাও। যদি দেখতে পাও যে সংবাদগুলো – ” বিশ্বের প্রথম করোনার ওষুধ আবিস্কার করলেন চট্টগ্রামের ফারহাজ” কিংবা “কিংবা বরিশালে কচুপাতার বাগানে স্বর্ণের খনি আবিস্কার করলো আয়মান” এই ধরনের, তাহলে আশা করি তোমার আর বুঝতে বাকি থাকবে না ওয়েবসাইটটি আসল নিউজ দিচ্ছে নাকি ভুয়া নিউজ।

আরো পড়তে পারো ৫টি ইউটিউব চ্যানেল যা আমাদের স্মার্ট করে তুলবে

৪। সংবাদটি কি ভবিষ্যৎ বিস্ময়কর কোনো ঘটনার কথা বলছে?

অতিপ্রাকৃত বা বিস্ময়কর ঘটনার প্রতি মানুষের আগ্রহ বরাবরই অনেক বেশি। আর এই আগ্রহকেই পুঁজি করে অনেক ভুয়া সংবাদ ছড়ানো হয়ে থাকে। করণ এই ধরনের নিউজ ভাইরাল হয়ে যায় চোখের পলকে। অনেক সময় সেখানে “নাসার গবেষণা মতে”, “বিজ্ঞানীদের ঘোষণা” ইত্যাদি বাক্যাংশ যুক্ত থাকে যাতে সংবাদটি বিশ্বাসযোগ্য হয়। আর আমরা এইসব বাক্যাংশ দেখে অকপটে সেগুলো বিশ্বাস করে ফেলি কোনোরকম যাচাইবাচাই এ না গিয়েই।

যেমন- “নাসার ভবিষ্যতবাণী, ৩০ নভেম্বর বিশাল একটা উল্কাপিণ্ড আঘাত হানবে মহাবিশ্বে” । নিউজটির শিরোনাম এমন যে বিশ্বাস করবে কি করবে না সেই দ্বিধায় পড়ে যেতে পারো। কিন্তু এর সমাধানতো তোমার জানা। নিউজটির সত্যতা যাচাই করতে অনুসরণ করো উপরের ২ ও ৩ নাম্বার ধাপগুলো।

আরো পড়তে পারো জীবনে সফল হতে হলে সবার আগে যা করনীয়

৫। ক্লিক বেইট

ক্লিকবেইট (Clickbait) হলো টোপের মতো চিত্তাকর্ষক কিছু যাতে মানুষ সেই লিংকে ক্লিক করতে প্রবল আগ্রহী হয়। ক্লিকবেইট এর শিরোনাম সাধারণ নিউজ এর শিরোনাম থেকে আলাদা হয়। যেমনঃ “কি করলো অমুক, দেখুন ভিডিও সহ।”

অনেক সময়ই ক্লিকবেইট গুলো হয়ে থাকে তারকা বা জনপ্রিয় ব্যক্তিদের কেন্দ্র করে। অর্থাৎ, যখনই দেখবে কোন শিরোনাম অনেক বেশি চিত্তাকর্ষক বা এতে কোনো সম্মানিত ব্যক্তির অখ্যাতির কথা রয়েছে, তখন তার ভুয়া সংবাদ হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

তবে তোমার আর এক ধরনের ওয়েবসাইট সম্পর্কে জেনে রাখা দরকার। সেটি হচ্ছে সারকাজম বা রম্য ওয়েবসাইট। অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে সারকাজম/হিউমার বা রম্যসংবাদ পরিবেশন করা হয়।

যদিও তাদের প্রথম দেখায় মনে হবে পেশাদার সংবাদ মাধ্যম। এসব ওয়েবসাইটের কাজ ভুয়া সংবাদ উপস্থাপন নয় বরং মানুষকে বিনোদন দেয়া। এদের অধিকাংশ পাঠক বিনোদনের জন্যই সংবাদ গুলো পড়ে থাকেন, যদিও অনেক সময় নব্য পাঠকেরা এগুলোকে সত্য মনে করে ফেলেন।

এজন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের সংবাদটি যদি অনেক হাস্যরসাত্মক হয়ে থাকে, তাহলে সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে ওয়েবসাইটটি রম্য বা স্যাটায়ার। যেমন– theonion.com, cracked.com ইত্যাদি।

আরো পড়তে পারো মোটিভেশনের অভাব?

আশা করছি উপরের ইনফরমেশনগুলো জানার পর তুমি আর কখনো Fake News নিয়ে বিভ্রান্ত হবে না। আর আমরা যদি যার যার জায়গা থেকে নিজেরাই সচেতন হয়ে যাই তাহলে আর Fake News ছড়াবে না। এজন্যই বুদ্ধিমানের পরিচয় কোন কিছু করা, ভাবা বা বলার আগে সংবাদের সত্যতা যাচাই করা এবং সত্যতা যাচাই করেই কোনো সংবাদ শেয়ার করা। যখন এইসব নিউজ ভাইরাল হওয়া বন্ধ হবে তখন এগুলো থেকে অসাধু ব্যাক্তিরা অর্থ উপার্জন করতে পারবে না এবং এইসব ভুয়া খবর ছড়ানো বন্ধ করবে।

স্কিল ডেভেলপমেন্ট ও নানা রকম মজার টপিক নিয়ে আমরা নিয়মিত ভিডিও প্রকাশ করে থাকি Shadhin School চ্যানেল এ।

 

আরো পড়তে পারো
ক্যারিয়ার শুরুতে ব্যর্থ ছিলেন সফল যে ৪ উদ্যোক্তা
সফলতার ৭টি সুত্র
ভার্সিটি জীবন শুরুর আগে করে ফেলো এই ৫টি কাজ
ফেইল মানেই কি সব শেষ?

 

Leave a Response

Abdullah Abu Sayeed
I am an Architecture student who loves to narrate story through lens. Loves to writes and wants to be a successful Entrepreneur.